বিনোদন

আমি এটিএম শামসুজ্জামানের প্রতি কৃতজ্ঞ : শুভাশীষ মুখার্জী

এটিএম শামসুজ্জামান শুভাশীষ মুখার্জীপ্রথমবারের মতো ঢাকায় আয়োজিত হলো ‘ভারত বাংলাদেশ ফিল্মস অ্যাওয়ার্ড’ (বিবিএফএ)। বাংলাদেশের বসুন্ধরা গ্রুপ ও ভারতের ফিল্ম ফেডারেশন অব ইন্ডিয়ার উদ্যোগে এবং টিএম ফিল্মসের নিবেদনে।

সোমবার (২১ অক্টোবর) রাতে রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরার (আইসিসিবি) নবরাত্রি হলে জাঁকালো এ আয়োজনে দুই বাংলার নির্বাচিত সেরা তারকাদের হাতে পুরষ্কার তুলে দেওয়া হয়।

এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত হয়েছিলেন দুই বাংলার অনেক তারকা। এসেছিলেন ওপার বাংলার জনপ্রিয় অভিনেতা শুভাশীষ মুখার্জী। দীর্ঘ অনেকদিন পর তিনি ঢাকায় এলেন।

স্টেজে শিল্পীদের হাতে পুরস্কার তুলে দিতে এসে নিজের একটি পুরনো স্মৃতি শেয়ার করলেন সবার সাথে। সেই স্মৃতির সাথে জড়িয়ে রয়েছেন বরেণ্য অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামান।

শুভাশীষ মুখার্জি বলেন, ‘একবার একটি ছবির শুটিং করতে বাংলাদেশে এসে এক মহান অভিনেতা, অত্যন্ত শ্রদ্ধেয় একজন মানুষ এটিএম শামসুজ্জামানের সাথে দেখা হয় আমার। তিনি আমাকে শুটিংয়ের পর বললেন, শুভাশীষ আজকে কাজ আছে তোমার। চলো তোমাকে ঢাকা শহরটা ঘোরাই।’

আমি অনেকদিন আগে একবার উনাকে বলেছিলাম যে, ‘এখানে আড়ংয়ে নাকি ভালো পাঞ্জাবি পাওয়া যায় শুনেছি। সেই কথাটা মনে রেখে তিনি আমাকে গাড়িতে করে বসুন্ধরা সিটিতে আড়ং এর দোকানে নিয়ে গেলেন।

সেখানে আমি পাঞ্জাবি দেখছিলাম। আর তিনি সেখানে ঢুকেছেন দেখে সবাই উনার আপ্যায়ন করতে শুরু করলো। আমি ঘুরে ফিরে পাঞ্জাবি দেখছি, একটা পাঞ্জাবি হাত দিয়ে দেখলাম ভালোই লাগছে। দাম দেখে আমি সাহস করতে পারছিলাম না কিনবো কিনা!

তখন দেখি তিনি কাউন্টারের সামনে গিয়ে কাউন্টারের লোকের সাথে গল্প করছেন। আমি যখন চলে যাবো তখন আমাকে বললেন, ‘হয়ে গেলো দেখা?’ আমি বললাম, হ্যাঁ, দেখা হয়ে গেছে। আর দেখব না। ঠিক তখন তিনি আমার হাতে একটা প্যাকেট দিয়ে বললেন, এটা তোমার। আমি বললাম মানে? উত্তরে তিনি বললেন, পাঞ্জাবিটা তোমার পছন্দ হয়েছিল। তাই এই পাঞ্জাবিটা আমার কলকাতার মেহমানের জন্য। এটা তোমার।’

তার প্রতি শ্রদ্ধা রেখে তার দেওয়া সেই পাঞ্জাবিটা পরেই আমি আজকে এই অনুষ্ঠানে এসেছি। আমি কৃতজ্ঞ সেই মানুষটির প্রতি।



জুমবাংলানিউজ/ জিএলজি

সর্বশেষ সংবাদ




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


Add Comment

Click here to post a comment