খেলাধুলা

আরেকটু দেরি হলেই ভয়ানক কিছু ঘটতো : ইমরুল

স্পোর্টস ডেস্ক : আফগানিস্তানের বিপক্ষে হোম সিরিজে একমাত্র টেস্টে দলে ছিলেন না ইমরুল কায়েস। ছেলের ডেঙ্গু চিকিৎসা নিয়ে ব্যস্ত থাকায় তিনি খেলতে পারেননি। আরেক অভিজ্ঞ ওপেনার তামিম ইকবাল না থাকায় মাঠে নামার জোর সম্ভাবনা ছিল তার। ছেলের চিকিৎসা শেষে এবার ইমরুল ব্যস্ত হয়েছেন ব্যাট বল নিয়ে। মাঠে ফিরেই জানালেন ছেলেকে নিয়ে জীবনের কঠিন সময় পার করার কথা।
imrul_kayes
ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে ছেলেকে রাজধানীর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করান ইমরুল। কিন্তু যেদিন হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হবে ওই দিনই ঘটে বিপত্তি। আবার জ্বর আসে, শরীরে র‍্যাশ ওঠে। তার ছেলে আক্রান্ত হন জটিল রোগে। দেশের চিকিৎসকরা কী রোগ এটাই বুঝতে পারছিলেন না। তখন ইমরুল তাৎক্ষণিক সিদ্ধান্ত নেন দেশের বাইরে নিয়ে যাবেন। বিসিবি প্রধানের সহায়তায় একদিনের মধ্যে ভিসা করে সিঙ্গাপুরে নিয়ে ছেলেকে চিকিৎসা দেন এই বাহাতি ব্যাটসম্যান।

আজ বুধবার ইমরুল বলেন, ‘ওর ডেঙ্গু হয়েছিল, নরমাল একটা রোগ। ওটার জন্য আমি হাসপাতালে ভর্তিও করলাম। কিন্তু যেদিন রিলিজ হয়ে যাবে ওইদিন হঠাৎ করে ওর জ্বর আসে, রেশ ওঠে, ফুলে গেছে মানে খুব ডেঞ্জারাস একটা অবস্থা। ডাক্তার ফাইন্ডআউট করতে পারে না আসলে প্রবলেম কী। পরে ওকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে যাই।’

আর একটু দেরি হলেই ঘটতো ভয়ানক কিছু-এ কথা জানিয়ে ইমরুল বলেন, ‘সিঙ্গাপুরে ডাক্তাররা ফাইন্ডআউট করতে পারে রোগটা কী, ওইদিনই একটা ইনজেকশন দেওয়া লাগতো। এটা ছিল সপ্তম দিন কিন্তু এটা অষ্টম দিন হয়ে গেলেই খুব প্রবলেম হয়ে যেত। লাকিলি ভিসাটা করতে পেরেছি। পাপন ভাই আমাদের খুব হেল্প করেছে। একদিনের ভেতর ভিসা করে দিয়েছে।’

ইমরুল জানান, এই কয়দিন তার জন্য, তার ফ্যামিলির জন্য খুবই কষ্টকর ছিল। তাই সকিছু থেকে বিরতি নিয়ে ছেলেকে নিয়ে ছুটোছুটি করেছেন। তিনি বলেন, ‘ফ্যামিলি, ছেলে যদি অসুস্থ হয়ে যায়। তাহলে এত কষ্ট করে তো লাভ নাই।’

আগামী ১০ অক্টোবর থেকে শুরু হবে ঘরোয়া ক্রিকেটের জমজমাট আসর জাতীয় লিগ। সবকিছু ঠিক থাকলে ইমরুলকে দেখা যাবে ব্যাট হাতে।



জুমবাংলানিউজ/এসওআর




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


Add Comment

Click here to post a comment

সর্বশেষ সংবাদ