আন্তর্জাতিক প্রবাসী খবর

উত্তাল লেবাননে বাংলাদেশিদের সতর্ক থাকার পরামর্শ

Dark Mode

253আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কয়েকটি অ্যাপসের ভয়েস কলে রাজস্ব যোগ করার পরিকল্পনার জেরে লেবানন এখন আন্দোলনে উত্তাল। সরকার এই পরিকল্পনা থেকে ফিরে আসার ঘোষণা দিলেও আন্দোলন অব্যাহত আছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে লেবাননে অবস্থানকারী বাংলাদেশিদের সতর্কভাবে চলাফেরার পরামর্শ দিয়েছেন সেখানে নিযুক্ত বাংলাদেশি রাষ্ট্রদূত। এই অবস্থায় লেবাননে বসবাসকারী বাংলাদেশিদের ব্যাপারে সার্বক্ষণিক খোঁজখবর রাখছেন রাষ্ট্রদূতসহ দূতাবাস কর্মকর্তারা।

শুক্রবার স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টায় এই সংকট নিরসনে দেশটির প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি জাতির উদ্দেশে দেয়া ভাষণে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে বাহাত্তর ঘণ্টা সময় চান। কিন্তু আন্দোলনকারীরা সেটা প্রত্যাখ্যান করে গভীর রাত পর্যন্ত রাস্তায় রাস্তায় বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। আর সেই আন্দোলন শনিবারও অব্যাহত থাকে।

বৃহস্পতিবার লেবানন সরকারের পক্ষ থেকে হোয়াটসঅ্যাপ, ফেসবুক, ম্যাসেঞ্জার, অ্যাপলের ফেইস টাইমের মতো অ্যাপগুলোর ভয়েস কলে রাজস্ব ধার্যের পরিকল্পনার ঘোষণা দেওয়া হয়। কিন্তু ঘোষণাটির কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই রাস্তায় নেমে আসেন হাজারো সাধারণ জনতা। এ সময় বিক্ষোভকারীদের সঙ্গে সংঘর্ষেও জড়িয়ে পড়ে লেবাননের আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। পরবর্তী সময়ে পরিকল্পনাটি বাতিল করা হয়েছে বলে জানায় সরকার। কিন্তু তাতে বিক্ষোভ থামেনি।

এসব অ্যাপের ভয়েস কলে রাজস্ব যোগ হলে প্রতিদিন ২০ সেন্ট করে গুণতে হতো লেবাননের নাগরিকদের।

এই ঘটনায় লেবাননের অভ্যন্তরীণ সুরক্ষা বাহিনীর (আইএসএফ) এক টুইট বার্তায় জানিয়েছে, বিক্ষোভে তাদের ৪০ সদস্য আহত হয়েছে।

দেশটির মন্ত্রিপরিষদ বলছে, তারা মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) আরও বৃদ্ধি নিয়ে আলোচনা করবে। এই ঘোষণাগুলো দিনের বেলা লেবাননের সোশ্যাল মিডিয়ায় আসার পর সাধারণ মানুষ ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠে এবং রাতারাতি তা বড় ধরনের বিক্ষোভে রূপ নেয়।

বিবিসির প্রতিবেদনে বলা হয়, গত কয়েক বছর মধ্যে সবচেয়ে বড় বিক্ষোভের মুখোমুখি হয় লেবানন। অর্থনৈতিক সংকটের মধ্যেও হাজার হাজার লেবানিজ রাস্তায় নামে সরকারি সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে। এজন্য তারা সরকারের কড়া সমালোচনা এবং দোষারোপ করে।



জুমবাংলানিউজ/এসআর

সর্বশেষ সংবাদ




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


জনপ্রিয় খবর

Add Comment

Click here to post a comment

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় খবর