অপরাধ-দুর্নীতি আইন-আদালত জাতীয় ঢাকা স্লাইডার

এডিস মশার লার্ভা পাওয়ায় ইউনাইটেড গ্রুপকে ২ লাখ টাকা জরিমানা

জুমবাংলা ডেস্ক: রাজধানীর গুলশান-২ এলাকায় অবস্থিত ইউনাইটেড গ্রুপকে আজ দুই লাখ টাকা জরিমানা করেছে  ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের (ডিএনসিসি) ভ্রাম্যমাণ আদালত।

অভিযান চলাকালে ইউনাইটেড গ্রুপের অফিস এবং বেইজমেন্টে অপরিচ্ছন্ন ও স্যাঁতসেঁতে পরিবেশ এবং দীর্ঘ দিন জমে থাকা পানিতে এডিস মশার লার্ভা, এডিস মশা বংশবিস্তারের উপযোগী পরিবেশ দেখতে পান ভ্রাম্যমাণ আদালত।

এই অপরাধে ভ্রাম্যমাণ আদালত ইউনাইটেড গ্রুপকে স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন, ২০০৯ অনুযায়ী ২ লক্ষ টাকা জরিমানা করা হয়।

এডিস মশার বংশবিস্তার রোধ করে ডেঙ্গু নিয়ন্ত্রণের লক্ষ্যে আজ ডিএনসিসি’র নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সাজিদ আনোয়ারের নেতৃত্বে এই আদালত পরিচালিত হয় বলে ডিএনসিসি’র এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে।

এছাড়া, গুলশান-২ এলাকায় অবস্থিত ৫টি নির্মাণাধীন ভবন, হাসপাতাল ও দপ্তরকে স্থানীয় সরকার (সিটি কর্পোরেশন) আইন, ২০০৯ অনুযায়ী সর্বমোট ২ লক্ষ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এর মধ্যে ৭৯ নং সড়কে ‘লেক ভিউ ক্লিনিক’কে ৫০ হাজার টাকা, একই সড়কের একটি বাড়ির মালিককে ৫০ হাজার টাকা, ৮১ নং সড়কে ‘ডিজাইন স্কেইপ আরকিটেক্ট ইন্সটিটিউট’কে ৫০ হাজার টাকা, ৭৩ নং সড়কে সোনিয়া গ্রুপকে ২৫ হাজার টাকা এবং ৭৩ নং সড়কে ‘মেটাল হোল্ডিং’কে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এসব স্থানে অপরিষ্কার পরিবেশ এবং এডিস মশার লার্ভা ও এডিস মশা বংশবিস্তারের উপযোগী পরিবেশ বিদ্যমান পাওয়া যায়।

ডিএনসিসির আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তাগণ বিভিন্ন স্থানে ১৪৫টি আবাসিক ভবন ও স্থাপনা পরিদর্শন করেন। পল্লবী এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট এস এম শফিউল আজম এর নেতৃত্বে এডিস মশার বংশবিস্তার উপযোগী পরিবেশ থাকায় এবং নির্মাণসামগ্রী ফুটপাত ও রাস্তায় রেখে জনদুর্ভোগ সৃষ্টির অভিযোগে মোট ৬টি মামলায় ৬২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

মিরপুর এলাকায় আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সালেহা বিনতে সিরাজ এর নেতৃত্ব বেলা সাড়ে ১১টা থেকে ২টা পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এ সময় অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ থাকায় ৪টি বাড়িকে নোটিস প্রদান করা হয়।

মোহাম্মদপুরে আঞ্চলিক নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মীর নাহিদ আহসানের নেতৃত্বে বেলা ৩টা থেকে ৫টা পর্যন্ত ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করা হয়। এডিস মশা বংশবিস্তারের উপযোগী পরিবেশ ও অপরিচ্ছন্নতার অভিযোগে ৪টি বাড়ির মালিককে ৩৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। এছাড়া মোহাম্মদপুর কৃষি মার্কেটের ছাদে অপরিচ্ছন্ন পরিবেশ থাকায় মুচলেকা নিয়ে ছাদ পরিষ্কার করার জন্য ২৪ ঘন্টা সময় বেঁধে দেয়া হয়।

জুমবাংলানিউজ/এইচএম


আপনি আরও যা পড়তে পারেন