আন্তর্জাতিক ওপার বাংলা

এবার নুসরাতকে নিয়ে বোমা ফাটালেন তসলিমা নাসরিন

Nusratআন্তর্জাতিক ডেস্ক : এক মাথা সিঁদুর পরে সংসদে গিয়ে শপথ নিয়েছিলেন তৃণমূল সাংসদ তথা অভিনেত্রী নুসরাত জাহান। রে রে করে উঠেছিলেন ইমামরা। জাত গেল গেল রবে ফতোয়া জারি করেছিল দেওবন্দ। হিন্দু ছেলেকে বিয়ে, মাথায় সিঁদুর, গলায় মঙ্গলসূত্র- কোনোটাই ভালো চোখে দেখেননি মুসলিম ধর্মগুরুরা।

কিন্তু কোনোদিনই সেসব তোয়াক্কা করেননি নুসরাত। বিয়ের পর থেকে কখনও রথযাত্রা, কখনও রাখি- সবেতেই সামিল হয়েছেন তিনি। এবার দুর্গা পুজোয় অঞ্জলি দেওয়া নিয়ে ফের আক্রমণের মুখে পড়েছেন অভিনেত্রী। মৌলানাদের দাবি, ইসলামের নাম বদনাম করা হচ্ছে। তাঁদের মতে, ‘আল্লা ছাড়া আর কারও সামনে প্রার্থণা করার অনুমতি ইসলাম দেয় না।’ আর সেইসব মন্তব্যের জবাবেই এবার সরব হয়েছেন তসলিমা।

বিতর্কিত লেখিকা বরাবরই ধর্ম নিয়ে গোঁড়ামির বিরুদ্ধে মুখর হন। এর আগেও নুসরাতের পাশে দাঁড়াতে দেখা গিয়েছে তাঁকে। এবারও তার ব্যতিক্রম নয়। তবে এবার নুসরাতকে সমর্থন করার পাশাপাশি খোঁচা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতাকে। তাঁর হিজাব পরার বিষয়টা ধরেই আক্রমণ শানালেন তসলিমা।

ট্যুইটারে তসলিমা লিখছেন, ‘যখন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় একজন অ-মুসলিম হয়ে অন্যান্য মুসলিমদের মত হিজাব পরেন ও আল্লার কাছে প্রার্থনা করেন তখন ইমামরা তাঁকে বলে নিরপেক্ষা। আর নুসরাত জাহান যখন অ-হিন্দু হয়ে অন্যান্য হিন্দুদের মত পূজা মণ্ডপে গিয়ে প্রার্থনা করেন, তখন তাঁকে ইমামরা বললে অ-মুসলিম।’

উল্লেখ্য, অষ্টমীর সকালে শহরের একটি মণ্ডপে গিয়ে স্বামী নিখিল জৈনের সঙ্গে একসঙ্গে অঞ্জলি দেন নুসরাত। লাল-শাড়ি পরে ঢাকের তালে নাচেনও তিনি। মুহূর্তেই সেই ছবি ভাইরাল হয়ে যায়। নুসরাত বলেন, ‘ধর্মীয় সম্প্রীতির বার্তা দেওয়ার জন্যই দুর্গার সামনে প্রার্থণা করেছি। এভাবেই আমি সব ধর্মের সঙ্গে সম্প্রীতির বার্তা দিয়েছি।’


জুমবাংলানিউজ/এসআর


আপনি আরও যা পড়তে পারেন


Add Comment

Click here to post a comment



সর্বশেষ সংবাদ