বিনোদন

কঠিন কাজ সহজে করেন ‘পরিমনি’

Dark Mode

porimoni-1002বিনোদন ডেস্ক : সমালোচকরা প্রায়শই বলে থাকেন যে বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের স্বর্ণযুগ অনেক আগে চলে গেছে। কিন্তু পরিমনির মতো প্রতিভাবান শিল্পীরা সেই দিনগুলোকে ফিরিয়ে আনার জন্য কঠোর পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।

‘ভালোবাসা সীমাহীন’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে ঢালিউড ইন্ডাস্ট্রিতে আত্মপ্রকাশের পর থেকে নিয়মিতভাবে বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাপী লাখ লাখ বাঙালি চলচ্চিত্রপ্রেমীদের মধ্যে মনে স্থান করে নিয়েছেন।

১৯৯২ সালের ২৪ অক্টোবর সাতক্ষীরায় জন্ম নেয়া পরিমনির আসল নাম শামসুন্নাহার স্মৃতি। খুব অল্প বয়সে বাবা-মা হারানোর পর নানার বাড়িতে বড় হন তিনি। এইচএসসি পাস করে ২০১১ সালে ঢাকায় আসেন এবং বুলবুল ললিত কলা একাডেমি (বাফা) থেকে নাচ শিখেন।

মডেলিং দিয়ে ক্যারিয়ার শুরু করা পরিমনি মূলত ২০১২ সালে নাটকের মাধম্যে অভিনয় জগতে নাম লেখান। পরবর্তী দুবছরে এক্সক্লুসিভ, এক্সট্রা ব্যাচেলর, কোথা দিলাম, তোমার জন্য, এপারওপার, নারী ও নবনিতা, মন ভালো নাই এবং সেকেন্ড ইনিংসসহ বেশ কয়েকটি টিভি নাটকে দুর্দান্ত অভিনয়ের মধ্য দিয়ে দর্শকের মন জয় করেন।

২০১৩ সালে গার্মেন্টস কারখানা রানা প্লাজার ধস নিয়ে নির্মিত চলচ্ছিত্র ‘রানা প্লাজা’ সিনেমায় চুক্তি করে ঢালিউড ইন্ডাস্ট্রিতে আলোচনায় নতুন করে আলোচনায় আসেন পরিমনি। যদিও জাতীয় ইস্যুর কারণে সেন্সর-বোর্ডে আটকে যায় ছবিটি। পরে ২০১৫ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারি তার পরবর্তী ছবি ‘ভালোবাসা সীমাহীন’ ছবিটি মুক্তি পায়। মুক্তি পাওয়া এটিই তার প্রথম চলচ্চিত্র।

এ ছবির মাধ্যমে ছোট পর্দাকে বিদায় জানিয়ে চলচ্চিত্র জগতে যাত্রা করেন পরিমনি। তারপর থেকে পরিমনির চলচ্চিত্র ক্যারিয়ার আকাশ ছুঁতে থাকে। ২০১৫ সালে ১৫ জন প্রযোজকের সাথে কাজের সুযোগ পান তিনি।

২০১৫ সালে, পরিমনির চলচ্চিত্রের ক্যারিয়ারে পাগলা দেওয়ানা, আরও ভালোবাসবো তোমায়, প্রেমিকা নম্বর ওয়ান, নগর মাস্তান, মহুয়া সুন্দরি, আমার মন জুড়ে তুই, নিষ্পাপ প্রেম, সারপ্রাইজ, প্রবাসী ডন এবং ভালোবাসায় অনেক জ্বালাসহ আরও ১৫টি জনপ্রিয় চলচ্চিত্র যোগ হয়।

২০১৬ সালে রক্ত এবং ধূমকেতুতে কাজ করেছিলেন। ওয়াজেদ আলী সুমন পরিচালিত ‘রক্ত’ উল্লেখযোগ্য জাজ মিডিয়ার ব্যানারে নির্মিত হয়েছিল। বাংলাদেশি অ্যাকশন নির্ভর ছবিটি একজন নবাগতের বিপরীতে মূল চরিত্রে দুর্দান্ত অভিনয়ের জন্য বেশ প্রশংসা কুড়িয়েছেন তিনি।

পরবর্তীতে, ২০১৭ সালে পরিমনি অভিনীত ‘কত স্বপ্নর কত আশা’, এবং ‘সোনাবন্ধু’ ছবিটি মুক্তি পায়। পরের বছর (২০১৮) ‘স্বপ্নজাল’ ছবিতে অভিনয় করেন তিনি।এর মধ্যে সোনা বন্ধু ও স্বপ্নজাল ব্যাপক হিট করে।

সংক্ষিপ্ত অথচ গৌরবময় চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারে ইতিমধ্যে শাকিব খান, জায়েদ খান, আনিসুর রহমান মিলন, মামুনুর রশীদ, সাইমন সাদিক, বাপ্পি চৌধুরী, আরেফিন শুভ, জিয়াউল রশান, যশ রোহান, আবুল হায়াত ও প্রবীর মিত্রসহ ঢালিউডের বহু বিখ্যাত অভিনেতাদের সাথে অভিনয় করেছেন পরিমনি।

এছাড়া, ২০১৫ সালে বাংলাদেশ সরকারের অর্থায়নে এবং রাশান আরা নিপা পরিচালিত ‘মুহুয়া সুন্দরী’ সিনেমায় পরিমনি সহ-অভিনেত্রী ও সহ-প্রযোজক হিসেবে কাজ করেছেন। সেই সাথে বহুমাত্রিক এই অভিনেত্রী ‘প্রেম আমার প্রিয়া’ সিনেমায় একটি গানেও কণ্ঠ দিয়েছেন।

উল্লেখযোগ্য বিষয় হলো পরিমনি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র জগতের রত্ন। পরিমনি ভক্তরা সামনের দিনগুলোতে আরও অনেক চলচ্চিত্রে দুর্দান্ত অভিনয়ের জাদুকরী এই কন্যার উপস্থিতি দেখার জন্য অপেক্ষা করছেন।



জুমবাংলানিউজ/এসআর

সর্বশেষ সংবাদ




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


জনপ্রিয় খবর

Add Comment

Click here to post a comment

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় খবর