আইন-আদালত

কোটি টাকার জাল রূপির মামলায় পাকিস্তানির জেল

জুমবাংলা ডেস্ক : এক কোটি টাকার বেশি ভারতীয় জাল রূপি দখলে রাখার মামলায় পাকিস্তানী নাগরিক মোহাম্মাদ এমরানের ছয় বছরের কারাদণ্ডের রায় দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার ঢাকার ৪ নম্বর বিশেষ ট্রাইব্যুনালের বিচারক মো. রবিউল আলম এ রায় ঘোষণা করেন।

রায়ে আসামিকে ছয় বছর কারাদণ্ডের পাশাপাশি ১০ হাজার টাকা জরিমানা, জরিমানা অনাদায়ে আরও ছয় মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত।

দণ্ডিত ইমরান পাকিস্তানের করাচির নাগরিক। তার পিতার নাম আব্দুল গাফফার। তার পাসপোর্ট নম্বর বি-জেড ১২২৫৩০৩।

রায় ঘোষণার সময় আসামিকে কারাগার থেকে ইমরানকে আদালতে হাজির করা হয়। রায় ঘোষনার পর তাকে সাজা পরোয়ানা দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয়।

মামলার রাষ্ট্রপক্ষের সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর সালাহউদ্দিন হাওলাদার বলেন, ২০১৫ সালের ১৫ জানুয়ারি কাতার এয়ারলাইনসের ফ্লাইট নম্বর কিউআর ৬৩২ নম্বর ফ্লাইটে আসামি এমরান দোহা থেকে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক আসেন। গ্রিন চ্যানেল অতিক্রম করার সময় কাস্টমস কর্মকর্তারা তার গতিরোধ করেন। এ সময় তারা আসামির লাগেজ স্ক্যানিং করে আশি লাখ ভারতীয় রুপি যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ কোটি ২ লাখ ৪০ হাজার টাকা জব্দ করেন। পরে বিশেষজ্ঞ দিয়ে পরীক্ষা করে দেখা যায় আসামির বহন করা রুপিগুলো জাল।

এ ঘটনায় পরদিন সহকারী রাজস্ব কর্মকর্তা মো. মোজাম্মেল হক বাদী হয়ে ঢাকার বিমানবন্দর থানায় একটি মামলা করেন। মামলাটি তদন্ত করে কাউন্টার টেররিজম ইউনিটের এসআই ইলিয়াছ মোল্যা ২০১৬ সালের ৪ ডিসেম্বর আসামিকে অভিযুক্ত করে আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন।

বিচারকাজ চলাকালে আদালত চার্জশিটভূক্ত ৮ সাক্ষীর মধ্যে চার জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন ট্রাইব্যুনাল। আসামিপক্ষে অ্যাডভোকেট তাহমীনা আক্তার হাশেমী মামলা পরিচালনা করেন।


জুমবাংলানিউজ/এসআর