খেলাধুলা জাতীয়

ক্রিকেটের ইতিহাসে সবচেয়ে দামি ব্যাট ব্যবহার করছে যে দু’জন

imgonline-com-ua-twotoone-0KfaX1Cxbyk3C5GFমোহাম্মদ আল আমিন : ক্রিকেটে একজন ব্যাটসম্যানকে ব্যাট থেকে শুরু করে প্যাড, গ্লাভস, গার্ড, হেলমেট আরও অনেক কিছুই ব্যবহার করতে হয়। আর এসব সরঞ্জামের পিছনে খরচ করতে হয় অনেক টাকা।

ক্রিকেট সরঞ্জামের মধ্যে সব থেকে বেশি দাম দিয়ে যে জিনিসটি কিনতে হয় সেটি হচ্ছে, ব্যাট। যদিও আন্তর্জাতিক মানের খেলোয়াড়রা বিভিন্ন কোম্পানি থেকে ব্যাট গুলো স্পন্সর পেয়ে থাকে। তাদের খরচ করতে হয় না একটি টাকাও।

maxresdefaultকিন্তু যারা উদীয়মান বা যারা ক্রিকেট শিখতে চায় তাদের ক্ষেত্রে একটু ব্যতিক্রম। তাদের নিজ অর্থায়নেই ব্যাট সংগ্রহ করতে হয়। আর এর পিছনে হাজার হাজার টাকা ব্যয় করে থাকে তাদের পরিবার গুলো। বাংলাদেশে খেলার যোগ্য একটি ব্যাটের দাম কম করে হলেও ৬-৭ হাজার টাকা।

তবে বর্তমান ক্রিকেট বিশ্বে এমন দুজন খেলোয়াড় আছে যারা ক্রিকেট মাঠে সব থেকে বেশি দামি ব্যাট ব্যবহার করে থাকে। আর সে দুজন খেলোয়াড় হচ্ছে ভারতীয় সাবেক ও বর্তমান অধিনায়ক, মহেন্দ্র সিং ধোনি এবং ভিরাট কোহলি।

সাবেক অধিনায়ক মহেন্দ্র সিং ধোনি যে ব্যাটটি ব্যবহার করে থাকে তার নাম হচ্ছে, স্পার্টান এমএসডি ৭। ধোনির ব্যাটটি বানানো হয় ইংলিশ গাছের কাঠ দিয়ে। ব্যাটটির ওজন ১১৮০-১২৫০ গ্রাম। যার দাম ২৪,০০০ রুপি। বাংলাদেশি টাকায় যেইটার দাম গিয়ে পৌঁছায় ২৮,৬৭৮ টাকায়।

ghjঅন্যদিকে বর্তমান ভারতীয় অধিনায়ক, ভিরাট কোহলি যে ব্যাট ব্যবহার করে থাকে তার নাম এমআরএফ জিনিয়াস গ্র্যান্ড এডিশন। ভিরাটের ব্যাটটিও ইংলিশ গাছের কাঠ দিয়েই বানানো হয়ে থাকে। যার দাম ২৩,০০০ রুপি। বাংলাদেশি টাকায় যা গিয়ে দাঁড়ায় ২৭,৪৮৩ টাকা।

প্রসঙ্গত, মহেন্দ্র সিং ধোনির নেতৃত্বেই ভারত ২০১১ সালে দ্বিতীয়বারের মতো বিশ্বকাপ জিতে থাকে। আর তার ব্যাট থেকেই আসে জিতানোর রানটি। শ্রীলংকান বোলার নুয়ান কুলাসিকারার বলে
লং অন দিয়ে ছক্কা মেরে দলকে আবারও এনে দেয় সেই সোনালি কাপ।

২০১১ বিশ্বকাপের পর ধোনির বিশ্বকাপ জিতানো সেই ব্যাট লন্ডনে এক সমাজসেবা মূলক অনুষ্ঠানে বিক্রি করা হয়েছিলো ১ লাখ পাউন্ডে। যা বাংলাদেশি টাকায় প্রায় ১ কোটি ৪ লাখ টাকায় বিক্রি করা হয়েছিলো এবং ব্যাটটি কিনেছিলেন, আরকে গ্লোবাল শেয়ার্স অ্যান্ড সিকিউরিটিজ লিমিটেড (ইন্ডিয়া)।



জুমবাংলানিউজ/পিএম




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


Add Comment

Click here to post a comment

সর্বশেষ সংবাদ