বিভাগীয় সংবাদ রংপুর

দিনাজপুরের বিরলে ঘুমন্ত স্বামীকে হত্যা, স্ত্রী গ্রেফতার

জুমবাংলা ডেস্ক : দিনাজপুরের বিরলে ঘুমন্ত স্বামীকে শ্বাসরোধে হ’ত্যার অভিযোগে এক স্ত্রীকে আটক করেছে পুলিশ। পরকীয়া প্রেমের সূত্র ধরে এ হ’ত্যাকান্ড ঘটতে পারে বলে প্রাথমিক ভাবে পুলিশ ধারণা করছে।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার দিবাগত রাত ১০ টার দিকে উপজেলার ধর্ম্মপুর ইউপির ধর্ম্মপুর টিকরীপাড়া গ্রামের মোজাহার আলীর পুত্র ফরহাদুল ইসলাম (২৫) প্রতিদিনের ন্যায় রাতের খাবার শেষে স্ত্রী তৈয়বা বেগম (২০) ও ছেলে মোজাম্মেল (৪) কে সাথে নিয়ে নিজ শয়ন ঘরে ঘুমিয়ে পড়ে।

শুক্রবার সকাল ৬ টার দিকে স্ত্রী তৈয়বা বেগম স্বামী মোজাহার আলী মা’রা গেছে বলে চিৎকার দিলে আশ-পাশের লোকজন ছুটে আসে এবং ঘর থেকে ফরহাদুল কে বারান্দায় বের করে নিয়ে এসে দেখে ফরহাদুল মা’রা গেছে। এসময় তাঁর গোলায় কালো দাগ আছে ।

এলাকাবাসী জিজ্ঞাসাবাদে স্ত্রী তৈয়বার কথায় সন্দেহ হলে এলাকাবাসী তাঁকে আ’টক করে বিরল থানা পুলিশ কে খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে লা’শের সুরতহাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর এম, আব্দুর রহিম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করে এবং সেই সাথে এ ঘটনার জড়িত সন্দেহে স্ত্রী তৈয়বাকে আ’টক করে পুলিশ থানায় নিয়ে আসে। তৈয়বা বেগম দিনাজপুর জেলার বীরগঞ্জ উপজেলার ভোগনগর ইউপি’র চক মাহানপুর গ্রামের নূর ইসলামের কন্যা।

প্রায় সাড়ে ৪ বছর পূর্বে ফরহাদুলের সাথে তাঁর বিয়ে হয়। ঐ দম্পত্তির মোজম্মেল নামে ৪ বছর বয়সী এক ছেলে আছে। স্থানীয়রা জানান ফরহাদুলের বাড়ীতে একাধিক অপরিচিত লোক যাতায়াত করতো। বিরল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) এটিএম গোলাম রসুল জানান, লা’শের সুরত হাল শেষে ময়না তদন্তের জন্য দিনাজপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এলাকাবাসীর তথ্যের ভিত্তিতে ঘুমন্ত স্বামী ফরহাদুলকে হ’ত্যার অভিযোগে স্ত্রী তৈয়বাকে আ’টক করা হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে ধারণা করা হচ্ছে পরকীয়রা প্রেমের জেরধরে ফরহাদুলকে শ্বাসরোধ করে হ’ত্যা করা হয়েছে। সূত্র : ইনকিলাব

জুমবাংলানিউজ/এসআর


আপনি আরও যা পড়তে পারেন