বিভাগীয় সংবাদ রাজশাহী

ছাত্রীকে একা পেয়ে…

Dark Mode

2536জুমবাংলা ডেস্ক : নওগাঁর মান্দায় শিক্ষক কর্তৃক নবম শ্রেণির এক শিক্ষার্থী (১৪) ধ’র্ষণের শিকার হয়েছে বলে জানা গেছে। গত শুক্রবার সকালে উপজেলার কাঁশোপাড়া ইউনিয়নের ছোট চকচম্পক গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষক আমিনুল ইসলাম ওই গ্রামের মৃ’ত মহির উদ্দিনের ছেলে। তিনি ছোট চকচম্পক বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক।

ভিকটিমের দাদি জানান, শুক্রবার সকালে আমার নাতনি প্রাইভেট পড়ার জন্য শিক্ষক আমিনুল ইসলামের বাসায় নিয়ে যায়। এ সময় সেখানে আর কোনো শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিল না। এর কিছু পরে নাতনি কাঁদতে কাঁদতে বাসায় ফিরে তার মায়ের নিকট ধ’র্ষণের বিষয়টি জানায়।

শিক্ষার্থীর দাদি আরো বলেন, অন্য শিক্ষার্থীদের অনুপস্থিতিতে শিক্ষক আমিনুল ইসলাম আমার নাতনিকে ডেকে বাসার তিনতলার একটি কক্ষে নিয়ে যায়। সেখানে মুখ চেপে ধরে তাকে ধ’র্ষণ করে। শিক্ষক আমিনুলের পরিবার প্রভাবশালী হওয়ায় সংখ্যালঘু পরিবারটি চরম আতঙ্কে রয়েছে বলেও দাবি করেন ভিকটিমের দাদি।

স্থানীয়রা জানান, এ ঘটনায় ভিকটিম শিক্ষার্থীর মা বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রহিদুল ইসলামের নিকট গত শনিবার মৌখিক অভিযোগ দেন। কিন্তু প্রধান শিক্ষক এ বিষয়ে কোনো পদক্ষেপ না নিয়ে ঘটনাটি ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করেন। শিক্ষক আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে একাধিক নারী কেলেঙ্কারির অভিযোগ রয়েছে বলেও দাবি করেন স্থানীয়রা।

অবশেষে গতকাল সোমবার ভিকটিমের মা বাদী হয়ে মান্দা থানায় শিক্ষক আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে নারী ও শিশু নি’র্যাতন আইনে মামলা দায়ের করেছেন।

মান্দা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোজাফফর হোসেন জানান, ঘটনাটি অবহিত হয়ে শিক্ষক আমিনুল ইসলামের বিরুদ্ধে মামলা নেওয়া হয়েছে। ভিকটিমের ডাক্তারি পরীক্ষাসহ আসামিকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান।



জুমবাংলানিউজ/এসআর

সর্বশেষ সংবাদ




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


জনপ্রিয় খবর

Add Comment

Click here to post a comment

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় খবর