জাতীয়

জুন মাসে ডিএমপিতে সেরা হলেন যারা


জুমবাংলা ডেস্ক: ঢাকা মহানগরের আইন-শৃংখলা রক্ষা ও জননিরাপত্তা বিধানসহ ভালো কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ডিএমপির বিভিন্ন পর্যায়ের পুলিশ সদস্যকে নগদ অর্থ দিয়ে পুরস্কৃত করেছেন ডিএমপির কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১ টায় ডিএমপির সদর দপ্তরে জুন মাসের মাসিক অপরাধ পর্যালোচনা সভায় বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের হাতে পুরস্কারের নগদ অর্থ তুলে দেন তিনি।

জুন ২০১৯ মাসে ঢাকা মহানগর পুলিশের শ্রেষ্ঠ অপরাধ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে তেজগাঁও বিভাগ, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হয়েছেন পল্লবী জোনের এসএম শামীম। শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক হয়েছেন যাত্রাবাড়ী থানার ওসি মাজহারুল ইসলাম, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বংশাল থানার ওসি কায়কোবাদ কাজী, শ্রেষ্ঠ পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্) হয়েছেন কতোয়ালি থানার নিরু মিয়া, শ্রেষ্ঠ উপপরিদর্শক (এসআই) হয়েছেন চকবাজার মডেল থানার এসআই কৃষ্ণ পদ মজুমদার ও হাতিরঝিল থানার তৌকিক হোসেন, শ্রেষ্ঠ সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) যৌথভাবে মতিঝিল থানার এএসআই হেলাল উদ্দিনও পল্লবী থানার এএসআই এমএ রিয়াজ, শ্রেষ্ঠ ওয়ারেন্ট তামিলকারী অফিসার মতিঝিল থানার এএসআই হেলাল উদ্দিন, শ্রেষ্ঠ বিস্ফোরক উদ্ধারকারী অফিসার কতোয়ালি থানার নিরু মিয়া, শ্রেষ্ঠ মাদকদ্রব্য উদ্ধারকারী অফিসার শ্যামপুর জোনের সহকারী মফিজুর রহমান, শ্রেষ্ঠ চোরাই গাড়ি উদ্ধারকারী অফিসার ভাটারা থানার এসআই মশিউর রহমান।

ডিএমপির গোয়েন্দা বিভাগের শ্রেষ্ঠ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে সিরিয়াস ক্রাইম ইনভেস্টিগেশন, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ ডিবি উত্তরের বিমানবন্দর জোনাল টিমের অতিরিক্ত উপ কমিশনার মহররম আলী, চোরাই গাড়ি উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম ডিবি দক্ষিণের রফিকুল আলম, অস্ত্র উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিম এডিসি আলাউদ্দিন, মাদকদ্রব্য উদ্ধারে শ্রেষ্ঠ টিমের এডিসি মহরম আলী, অজ্ঞান-মলম পার্টি গ্রেপ্তারে শ্রেষ্ঠ টিম শুটিং ইনসিডেন্ট ইনভেস্টিগেশনের পরিদর্শক রিয়াজ উদ্দিন আহম্মেদ।

ডিএমপির ট্রাফিক বিভাগের শ্রেষ্ঠ বিভাগ নির্বাচিত হয়েছে ট্র্রাফিক-উত্তর বিভাগ, শ্রেষ্ঠ সহকারী পুলিশ কমিশনার হয়েছেন উত্তরা জোনের জুলফিকার আলী, শ্রেষ্ঠ ট্রাফিক ইন্সপেক্টর হয়েছেন রামপুরা জোনের বিপ্লব ভৌমিক, শ্রেষ্ঠ সার্জেন্ট যৌথভাবে সার্জেন্ট মিডিয়া শাখার তানভীর হাসান ও লালবাগ জোনের সার্জেন্ট নাহিদুর রহমান।

ট্রাফিক সচেতনামূলক কর্মসূচির জন্য বিশেষ পুরস্কারে পুরস্কৃত হয়েছেন ট্রাফিক গুলশান জোনের এডিসি এবিএম জাকির হোসেন ও ওয়ারী জোনের এসি এএসএম তারিকুল ইসলাম।

বিশেষ ক্যাটাগরিতে পুরস্কৃত হয়েছে, ডিএমপির (ক্রাইম এন্ড অপস্ বিভাগের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ও ডিসি ক্রাইম, ডিসি অর্থ, ডিসি আইএডি ও স্পেশাল অ্যাকশন গ্রুপ।

বিশেষ পুরস্কার

বিশেষ পুরস্কার পেলেন যারা তারা হলেন- খিলগাঁও জোনের এডিসি শাহিদুর রহমান, উত্তরা জোনাল টিমের এডিসি বদরুজ্জামান জিল্লু, ডিবি দক্ষিণের রমনা জোনাল টিমের এসি শামসুল আরেফীন।

ডিবি পশ্চিমের এডিসি রাহুল পাটওয়ারী, ডিবি পশ্চিমের পল্লবী জোনাল টিমের এডিসি শাহাদত হোসেন সুমা, রবারি প্রিভেনশন (ডাকাতি প্রতিরোধ) টিমের এসি সোলায়মান মিয়া, তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল জোনের এসি সালমান হাসান, অর্গানাইজড ক্রাইম প্রিভেনশন টিমের নাজমুল হক, অবৈধ মাদক উদ্ধার ও প্রতিরোধ টিমের এসি হান্নানুল ইসলাম, ওয়াবসাইট এন্ড ই-মেইল ক্রাইম টিমের এসি সাইদ নাসিরুল্লাহ, ডিজিটাল ফরেনসিক টিমের এসি ইশতিয়াক আহমেদ, তেজগাঁও জোনের এসি মাহমুদ হাসান, কামরাঙ্গীরচর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) বাবু কুমার সাহা, তেজগাঁও থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) সেন্টু মিয়া, তুরাগ থানার পুলিশ পরিদর্শক (অপারেশনস্) দুলাল হোসেন, সোশ্যাল মিডিয়া মনিটরিং টিমের পুলিশ পরিদর্শক নাজমুল নিশাত।

কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের পুলিশ পরিদর্শক শাহজাহান মন্ডল, উইমেন সাপোর্ট এন্ড ইনভেস্টিগেশন বিভাগের পুলিশ পরিদর্শক কুইন আক্তার, শাহবাগ থানার এসআই মনজুর হোসেন, হারুন অর রশিদ, এসআই আব্দুর রউফ বাহাদুর,কামরাঙ্গীরচর থানার এসআই আশরাফুল হকও মোসা. সোনিয়া পারভীন।

বংশাল থানার এসআই উজ্জল হোসেন, সূত্রাপুর থানার এসআই এস এম সালেহীন, ওয়ারী থানার এসআই সাজ্জাদুজ্জামান, কদমতলী থানার এসআই মাজহারুল ইসলাম, মতিঝিল থানার এসআই মিন্টু কুমার, খিলগাঁও থানার এসআই (নিহত) শেখ জসিম উদ্দিন, শাহজাহানপুর থানার এসআই আতিকুর রহমান, তেজগাঁও থানার এসআই সুমন, শেরেবাংলানগর থানার এসআই ওয়াজেদ আলী, এসআই সুজন বিশ্বাস, মোহাম্মদপুর থানার এসআই তারেক জাহান খান,আদাবর থানার এসআই রফিকুল ইসলাম, কাফরুল থানার এসআই রায়হানুজ্জামান, দারুসসালাম থানার এসআই আমিনুল ইসলাম ও এসআই যোবায়ের, গাবতলী বাস টার্মিনালের ইনচার্জ এসআই মাহাবুবুর রহমান।

শাহআলী থানার এসআই রবিউল ইসলাম, খিলক্ষেত থানার এসআই রিপন কুমার, শাহবাগ ট্রাফিক জোনের সার্জেন্ট আহসান হাবীব, নিউমার্কেট জোনের শিক্ষাণবিশ সার্জেন্ট মিজানুর রহমান, সবুজবাগ জোনের শিক্ষাণবিশ সার্জেন্ট রাকিবুল ইসলাম ও শিক্ষাণবিশ সার্জেন্ট ইমরান হোসেন।