আইন-আদালত জাতীয়

তিনজনের মৃ’ত্যুদণ্ড, সিগারেট টানতে টানতে আদালত ছাড়লেন আসামি

জুমবাংলা ডেস্ক : রাজধানীর মিরপুরে কে. এম. পারভেজ হাসান নামে এক ব্যক্তিকে হ*ত্যার দায়ে তিনজনকে মৃ’ত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বুধবার (৩১ জুলাই) দুপুরে ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-১ ও বিশেষ দায়রা আদালতের বিচারক আবু জাফর মো. কামরুজ্জামান আসামিদের উপস্থিতিতে এই রায় ঘোষণা করেন।

এদিকে রায় ঘোষণার পরে এজলাস থেকে বের হয়েই আদালতের বারান্দায় পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় সিগারেট টানলেন ফাঁ’সির দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি। আসামির নাম গোলাম রাব্বানী ওরফে রাব্বী।


দণ্ডপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন, পারভেজের স্ত্রী শাহানাজ পারভীন সোমা, মো. গোলাম রাব্বানী ওরফে রাব্বী ও মো. তানজিল আলম।

আদালতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন স্পেশাল পিপি মো. আবু আব্দুল্লাহ ভূঞা, আসামিপক্ষে ছিলেন আইনজীবী এ.এফ.এম আবদুল ওয়াদুদ ও মনির মোল্লা।

পারভেজের বাড়ি খুলনার সোনাডাঙ্গা এলাকার বি.কে রায় সড়কে। ঢাকায় তিনি ৩১২/৪ এল. টোলারবাগ এলাকায় পরিবার নিয়ে ভাড়া থাকতেন।

মামলার নথি থেকে জানা যায়, ২০১২ সালের ৩০ জুলাই সকাল ৯টা থেকে সাড়ে ১১টার মধ্যে আসামি শাহানাজ পারভীন সোমা এবং তার দুই ভাই মো. গোলাম রাব্বানী ও মো. তানজীল আলম শ্বাসরোধ করে কে এম পারভেজ হাসানকে হ*ত্যা করেন। হ*অত্যার পরে তারা পারভেজের স্বজনদের না জানিয়ে মরদেহ দাফন করারও চেষ্টা করেন।

ওই ঘটনায় পারভেজের মা মমতাজ বেগম বাদী হয়ে দারুস সালাম থানায় দণ্ডবিধির ৩০২/৩৪ ধারায় মামলা দায়ের করেন। মামলা নম্বর ৪৬।

মামলায় আসামি করা হয়, শাহানাজ পারভীন সোমা, মো. গোলাম রাব্বানী, মো. তানজীল আলম ও রোকেয়া বেগমকে। পরবর্তীতে নির্দোষ প্রমাণিত হওয়ায় রোকেয়া বেগমকে অব্যাহতি দেন আদালত।

জুমবাংলানিউজ/এসওআর


আপনি আরও যা পড়তে পারেন