বিনোদন

থানায় এসে অভিনেত্রীর কান্নাকাটি

নির্যাতনের খবর সামনে আনলেন টেলিভিশনের হিন্দি সিরিয়ালের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারি। স্বামী ও শাশুড়ি তাকে মারধর করে। শুধু তাই নয়, মুম্বাইয়ের সমতানগর থানায় অভিযোগ করতে গিয়ে থানার বাইরে কান্নাকাটি করতে দেখা যায় শ্বেতা তিওয়ারিকে।

শ্বেতা তিওয়ারির অভিযোগ, তার স্বামী অভিনব কোহলি নিয়মিত মদ্যপান করেন এবং তার ঘোরেই তাকে মারধর করেন। নায়িকার প্রথম পক্ষের যে মেয়ে রয়েছে তার গায়েও হাত তোলেন অভিনব। প্রথম স্বামীর সঙ্গেও এমনই সমস্যা হতো তার। যার কারণে করেছিলেন ডিভোর্স। কিন্তু দ্বিতীয় স্বামীর থেকেও একই ব্যবহার মেলায় তিনি মর্মাহত।

শ্বেতার অভিযোগ পাওয়ার পর তার স্বামীকে থানায় ডেকে পাঠানো হয়। এরপর থানায় পুলিশ অফিসারের সামনে বসে কথা বলে নিজেদের মদ্যে অশান্তি মিটিয়ে নেন তারা। আপাতত ঘরোয়া কোন্দল মিটিয়ে বাড়িতে ফিরিয়ে নিয়েছেন অভিনব। পুলিশের কাছে কথা দিয়েছেন বউয়ের গায়ে আর হাত তুলবেন না অভিনব।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে অভিনব কোহলিকে বিয়ে করেন অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারি। ২০১৬ সালে তাদের সন্তান রেয়ানশের জন্ম হয়। এর আগে রাজা চৌধুরীর সঙ্গে বিয়ে হয় শ্বেতার। কিন্তু সেখানেও নির্যাতনের অভিযোগে বিবাহ বিচ্ছেদ হয় শ্বেতার। রাজা ও শ্বেতার মেয়ে পলক৷ এবার মা ও মেয়েকে মারধরের অভিযোগ উঠল অভিনবের বিরুদ্ধে।

জুমবাংলানিউজ/ জিএলজি


আপনি আরও যা পড়তে পারেন