আন্তর্জাতিক ওপার বাংলা

মাকে স্কুটারে বসিয়ে ৪৮ হাজার কিমি পথ পাড়ি দেওয়া কৃষ্ণকে গাড়ি উপহার দিতে চান আনন্দ মহীন্দ্রা

Dark Mode

squtarআন্তর্জাতিক ডেস্ক : কর্নাটকের মাইসুরুর বাসিন্দা ডি কৃষ্ণ কুমার। ছোটবেলা থেকে তিনি দেখে এসেছেন যৌথ পরিবারের গৃহস্থালির কাজ সামলেই কেটে গিয়েছে মায়ের সময়। বাইরে কোথাও ঘুরতে যেতে দেখেননি মাকে। বছর খানেক আগে তাঁর বাবা মারা গিয়েছেন। তার পর থেকে মাইসুরুতে একাই থাকেন তাঁর মা। ৩৯ বছরের কৃষ্ণ কাজের সূত্রে থাকেন বেঙ্গালুরুতে।

গত বছর মা তাঁর কাছে হাম্পি দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন। মায়ের এই ইচ্ছার কথার শুনে, মনে মনে কষ্ট পেয়েছিলেন কৃষ্ণ। তিনি ভেবেছিলেন, বাড়ির কাছের এত বিখ্যাত জায়গাটিও দেখা হয়নি ৭০ বছর বয়সি মায়ের! তখন তিনি নিজের কাজ ছেড়ে দেন। ঠিক করেন ভারতের বিভিন্ন জায়গা ঘুরিয়ে দেখাবেন মাকে। তার পর ২০ বছর আগে বাবার উপহার দেওয়া স্কুটারে মাকে বসিয়ে বেরিয়ে পড়েন ভারতের বিভিন্ন জায়গা ঘুরতে। গত সাত মাসে বাবার দেওয়া সেই স্কুটারে মাকে বসিয়ে তিনি পাড়ি দিয়েছেন প্রায় ৪৮ হাজার ১০০ কিলোমিটার পথ। নেপাল, ভুটান-সহ মাকে ঘুরিয়েছেন দেশের বিভিন্ন রাজ্যে ছড়িয়ে থাকা বিভিন্ন দর্শনীয় স্থান।

মাকে নিয়ে দেশ ভ্রমণকে কৃষ্ণ নাম দিয়েছেন মাতৃ সেবা সংকল্প যাত্রা। কেরল, তামিলনাড়ু, অন্ধপ্রদেশ, তেলঙ্গানা, ছত্তীসগঢ়, ওড়িশা, পশ্চিমবঙ্গ, বিহার, সিকিম,আসাম, মেঘালয় এই সব জায়গায় তিনি মাকে ঘুরিয়েছেন স্কুটারে বসিয়েই। আর বাবার দেওয়া এই স্কুটারে যেতে যেতে তাঁর মনে হয়, বাবাও যেন তাঁদের সঙ্গেই আছেন।

মা চূড়ারত্নাকে নিয়ে কৃষ্ণের এই ভ্রমণের ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড হতেই ভাইরাল হয়েছে। ব্যবসায়ী আনন্দ মহীন্দ্রা থেকে নান্দি ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান মনোজ কুমার- সবাই কৃষ্ণের মাতৃভক্তি দেখে আবেগে বিহ্বল হয়েছেন। আর প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন কৃষ্ণকে। মাকে নিয়ে কৃষ্ণ যাতে আরও জায়গায় ঘুরতে পারেন সে জন্য তাঁকে মহীন্দ্রা ‘কেইউভি ১০০ এনএক্সটি’ গাড়িটি উপহার দেওয়ারও ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন আনন্দ।



জুমবাংলানিউজ/এসআই

সর্বশেষ সংবাদ




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


জনপ্রিয় খবর

Add Comment

Click here to post a comment

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় খবর