অর্থনীতি-ব্যবসা জাতীয় স্লাইডার

লাফিয়ে বাড়ছে সবজি ও কাঁচা মরিচের দাম

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাজধানীর খুচরা বাজারগুলোতে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে সবজি ও কাঁচা মরিচের দাম। বৃষ্টির কারণে সরবরাহ কমে যাওয়ায় দাম বেড়েছে বলে দাবি করছে ব্যবসায়ীরা।

রাজধানীর বেশ কয়েকটি বাজার ঘুরে দেখা গেছে,  কাঁচা মরিচ প্রতিকেজি বিক্রি হচ্ছে ২০০ টাকা দরে। কারওয়ানবাজার, শান্তিনগর, সেগুনবাগিচা, রামপুরা, অঞ্চলের বিভিন্ন বাজার ঘুরে ব্যবসায়ী ও ক্রেতাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, এক সপ্তাহ আগেও এই কাঁচা মরিচ ছিল ৬০ টাকা। হঠাৎ লাফিয়ে লাফিয়ে দাম বেড়ে যায়। মূল্যবৃদ্ধির কারণে ক্রেতাদের এখন আড়াই’শ গ্রাম কাঁচা মরিচে ১৫ টাকার বদলে প্রায় ৫০ টাকায় কিনতে হচ্ছে। বেড়েছে সব ধরনের সবজির দামও। কিছুদিন আগেও যে সবজি ৩০ টাকায় পাওয়া যেত, এখন তা কিনতে হচ্ছে ৫০ টাকায়। এতে সাধারণ মানুষের খুব কষ্ট হচ্ছে।

এদিকে আজ বেশির ভাগ সবজি ৬০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। বেশি দামের মধ্যে রয়েছে বেগুন ৮০ টাকা, টমেটো ১২০। এক কেজি দেশি শসা ১০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।

বিক্রেতারা বলছেন, দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে অতিবৃষ্টি ও বন্যায় সবজির ক্ষেত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে সরবরাহ কমে যাওয়ায় দাম বেড়ে গেছে।

এদিকে সপ্তাহের ব্যবধানে খুচরা বাজারে পেয়াজের কেজি ৫ টাকা কমেছে। যেসব বাজারে গত সপ্তাহে দেশি পেঁয়াজের কেজি ৪৫ টাকা বিক্রি হচ্ছিল, তা এখন কমে ৪০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। আর কিছুটা নিম্নমানের দেশি পেঁয়াজ বিক্রি হচ্ছে ৩০ থেকে ৩৫ টাকা কেজি, যা গত সপ্তাহে ছিল ৪০ টাকা কেজি। তবে কিছু কিছু বাজারে ভালো মানের দেশি পেঁয়াজ কেজি ৪৫ টাকা দরে বিক্রি হচ্ছে, যা গত সপ্তাহে ৫০ টাকা কেজি ছিল। অর্থাৎ সব বাজারে দেশি পেঁয়াজের দাম সপ্তাহের ব্যবধানে কেজিতে ৫ টাকা কমেছে।

তবে পেয়াজের দাম কমলেও বেড়েছে রসুনের দাম। বাড়তির দিকে দারুচিনি ও এলাচির দামও। আদা ও ডিম আগের মতো চড়া দামেই বিক্রি হচ্ছে। অবশ্য কেজিতে ৫ টাকা কমেছে পেঁয়াজের দাম।

এদিকে  ব্রয়লার হাউসে এক ডজন (১২টি) ফার্মের মুরগির ডিম ১১৫ টাকা, এক কেজি ব্রয়লার মুরগি ১৫০ টাকা এবং লেয়ার মুরগি ২২০ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা যায়। একই বাজারে চীনা রসুন ১৬০ টাকা, দেশি রসুন ১৩০ টাকা, চীনা আদা ১৪০ টাকা, থাইল্যান্ডের আদা ১৬০ টাকা, দেশি পেঁয়াজ ৪৫ টাকা ও ভারতীয় বড় পেঁয়াজ ৩৫ টাকা দরে বিক্রি করতে দেখা যায়।

জুমবাংলানিউজ/পিএম


আপনি আরও যা পড়তে পারেন