বিনোদন

সৎবাবার ‘অশ্লীলতা’ নিয়ে মুখ খুললেন অভিনেত্রীর মেয়ে

বিনোদন ডেস্ক : সৎ বাবা মেয়েকে অশ্লীল ছবি দেখাতেন। অশালীন ইঙ্গিতও করতেন ১৯ বছরের মেয়েকে দেখে। মত্ত হয়ে মেয়েকে মা’রধর করার মতো সব অভিযোগ করে থানায় মামলা ভারতের ছোটপর্দার জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্বেতা তিওয়ারি। তবে এসব অভিযোগ নিয়ে প্রথমে চুপচাপই ছিলেন পলক তিওয়ারি। তবে সোমবার (১২ আগস্ট) রাতে ইনস্টাগ্রামে একটা পোস্ট করেন পলক। আর সেই পোস্ট থেকেই জানা গেল সৎ বাবা অভিনব কোহালি ঠিক কী কী করতেন তাঁর মেয়ে ও স্ত্রীর সঙ্গে!

দুঃসময়ে যাঁরা পাশে ছিলেন, তাঁদের সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে ওই পোস্টে পলক তিওয়ারি লিখেছেন, ‘আমার কিছু জিনিস স্পষ্ট করে বলার রয়েছে। আমি পলক তিওয়ারি। একাধিক বার গার্হস্থ্য হিংসার শিকার হয়েছি। আমাকে মা’রা হলেও এর আগে আমার মাকে কখনই মা’রধর করেনি অভিনব কোহালি। যে দিন মা থানায় মামলা করে সে দিনই মাকে মা’রধর করা হয়। এই প্রথম।’

পলক তাঁর মা শ্বেতার পাশে দাঁড়ানোর বার্তা দিয়ে লিখেছেন, ‘আপনাদের কোনও ধারণা নেই, দুটি বিয়েতেই আমার মাকে কী পরিমাণ অ’ত্যাচার সহ্য করতে হয়েছে। তাই খুব অল্প জেনে তা নিয়ে মন্তব্য বা আলোচনা করার কোনও অধিকার আপনাদের নেই। সময় হয়েছে মায়ের পাশে দাঁড়ানোর। ওঁর মতো মনের জোর আমি আর কারও মধ্যে দেখিনি। নিজের চোখে মায়ের সংগ্রামের প্রতিটি মুহূর্ত দেখেছি আমি।’

শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনে অভিনবের প্রসঙ্গে পলক লেখেন, ‘আমাকে শারীরিক ভাবে কখনওই নির্যা’তন করেননি অভিনব। তবে তিনি ধারাবাহিক ভাবে আমার প্রতি অশ্লীল মন্তব্য করতেন যা বাবা হিসেবে একেবারেই অশোভনীয়।’

জুমবাংলানিউজ/এসআর


আপনি আরও যা পড়তে পারেন