আন্তর্জাতিক ওপার বাংলা

১৫ লাখ টাকা হোটেল বিল বকেয়া রেখে ব্যবসায়ীর চম্পট

Dark Mode

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ব্যবসায়িক কাজে হায়দ্রাবাদের বিলাসবহুল হোটেল তাজ বানজারায় একশ দিনের বেশি সময় অবস্থান করেন বিশাখাপতনমের ব্যবসায়ী এ শঙ্কর নারায়ণ। সামর্থ্য ছিলো বলেই থেকেছেন হোটেলের লাক্সারি স্যুইটে। এ সময়ে হোটেলে তার বিল হয়েছিলো প্রায় ৩১ লাখ টাকা। যার মধ্যে ১৬ লাখ টাকা পরিশোধও করেন।

এ পর্যন্ত সবই ঠিকঠাক। সমস্যাটা তৈরি হলো হঠাৎই তিনি লাপাত্তা, আর বিল বকেয়া ১৫ লাখ টাকার কিছু বেশি। যা উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে ওই ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে ‘প্রতারণা ও বিশ্বাস ভঙ্গ’র অভিযোগে মামলা করে হোটেল কর্তৃপক্ষ।

গত এপ্রিলের এ ঘটনা সম্প্রতি মামলা হওয়ায় সংবাদ মাধ্যমের নজরে আসে।

হোটেল কর্তৃপক্ষের করা মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, ওই ব্যবসায়ী হোটেলের লাক্সারি স্যুইটে ১০২ দিন অবস্থান করেন। এতে তার বিল আসে ৩০ লাখ ৮৫ হাজার টাকার মতো (২৫.৯৬ লাখ রুপি- ১ রুপি সমান ১.১৯ টাকা)। এর মধ্যে একদিন ওই ব্যবসায়ী তার বিলের মধ্যে ১৬ লাখ টাকার কিছু বেশি পরিশোধ করেন (১৩.৬২ লাখ রুপি)। আর অবশিষ্ট টাকা বকেয়া রেখে কাউকে না জানিয়ে চম্পট দেন।

যদিও পাওনা অর্থ উদ্ধারে বুকিংয়ের সময় দেওয়া নম্বরে ওই ব্যবসায়ীর সঙ্গে যোগাযোগ করেন হোটেলের কর্মকর্তারা। কথোপকথনে ব্যবসায়ী শঙ্কর হোটেল কর্তৃপক্ষকে বকেয়া পরিশোধের প্রতিশ্রুতিও দেন। পরবর্তীতে ওই নম্বর বন্ধ পেয়ে বানজারা হিলস পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ করেন হোটেল ম্যানেজার।

সাব-ইন্সপেক্টর পি রাভি এ বিষয়ে বলেন, হোটেল কর্তৃপক্ষের অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা একটি মামলা অন্তর্ভুক্ত করে তদন্ত শুরু করেছি।

আর অভিযোগের বিষয়ে ওই ব্যবসায়ীর বক্তব্য, বিল নিষ্পত্তি করেই আমি হোটেল ছেড়েছি। এ ধরনের অভিযোগ আমার সুনাম নষ্ট করেছে। আমি হোটেল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেবো।



জুমবাংলানিউজ/এসআর

সর্বশেষ সংবাদ




আপনি আরও যা পড়তে পারেন


জনপ্রিয় খবর

সর্বশেষ সংবাদ

সর্বশেষ সংবাদ

জনপ্রিয় খবর